ডিজিটাল মার্কেটিং: শিখতে হলে, জানতে হবে (পর্ব: ১)

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ব্যাপারে প্রথমেই জানতে হবে ডিজিটাল মার্কেটিং কী, এটি কীভাবে কাজ করে, অ্যানালগ মার্কেটিং এর সাথে ডিজিটাল মার্কেটিং এর কী কী পার্থক্য আছে এবং ডিজিটাল মার্কেটিং কত রকমের হতে পারে।

১. ডিজিটাল মার্কেটিং কী?

এককথায় ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে ইন্টারনেটের মাধ্যমে তথ্য প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার করে পণ্য বা সেবা সমূহকে গ্রাহক পর্যায়ে পৌঁছানো । আগেকার দিনে কোন কোম্পানি তাদের পণ্য সমূহকে বিক্রি করার জন্য বিভিন্ন মার্কেটারদের কে নিয়োগ দিতেন। তারা গ্রাহক পর্যায়ে গিয়ে উক্ত পণ্যের গুনাগুনগুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতেন এবং গ্রাহকদেরকে তা কেনার জন্য আকৃষ্ট করতেন। বর্তমানে সেই কাজটিই তথ্যপ্রযুক্তি এবং ইন্টারনেটের কল্যাণে অনলাইনেই করা হয় যেটাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলে।

২. ডিজিটাল মার্কেটিং কেন করবেন?

ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে বর্তমান পৃথিবীতে সব থেকে চাহিদা সম্পন্ন জব সেক্টর গুলোর মধ্যে অন্যতম। যতই দিন যাচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটারদের চাহিদা হু হু করে বেড়েই চলেছে। আমাদের দেশে খুব কম মানুষই এই পেশায় সক্রিয়। তাই জব পাওয়া তুলনামূলক সহজ হবে । আপনিও চাইলে দুই এক মাস ট্রেনিং নিয়ে কাজে লেগে যেতে পারেন। যতই দিন যাচ্ছে মানুষ ততই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে সক্রিয় হচ্ছে । আমরা প্রত্যেকেই কোন না কোন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যুক্ত । সেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকেই যদি লাইফটাইম ইনকাম জেনারেট করা যায় তাহলে ক্ষতি কি !

৩. ডিজিটাল মার্কেটিং কোথায় শিখবেন ?

আপনি অনলাইনে কিছুদিন ঘাটাঘাটি করার পর এটি সম্পর্কে আরো একটু সাধারন ধারণা অর্জন করবেন। তারপর ইউটিউব কিংবা বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কিছু ফ্রি ডিজিটাল মার্কেটিং টিউটরিয়াল পাওয়া যায় সেগুলো ফলো করতে পারেন । ইংরেজিতে দক্ষতা ভালো থাকলে বিভিন্ন বিদেশি ওয়েবসাইট গুলিতে বিনামূল্যে অনেক কোর্স পাওয়া যায়। যেগুলো থেকে আপনি নিজেকে সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত করতে পারবেন। তবে এখন বাংলাতেও অনেক ডিজিটাল মার্কেটাররা কোর্স করিয়ে থাকেন। মনে রাখবেন, পরিপূর্ণ ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে জব সেক্টর জব পাওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই একজন সাকসেসফুল ডিজিটাল মার্কেটারের সহযোগিতা প্রয়োজন হবে । এক্ষেত্রে সবথেকে ভালো হয় অনলাইনে অনেক পেইড কোর্স পাওয়া যায় সেখান থেকে যে কোন একটি কোর্স ইনরোল করলে । তাহলে আপনি তাদের সাপোর্ট পাবেন যেটা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ।

৪. কী কী সম্পর্কে ধারনা থাকতে হবে ?

এই কাজে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে মানুষকে আকৃষ্ট করার সক্ষমতা । আপনি যত মানুষকে আকৃষ্ট করতে পারবেন আপনার প্রোডাক্ট বা পণ্য ততই বিক্রি হবে। তাই ডিজিটাল মার্কেটিং করতে হলে আপনাকে অবশ্যই একজন কাস্টমারকে কিভাবে ইনগেজ করা যাবে সে সম্পর্কে বিস্তারিত ধারনা অর্জন করতে হবে। আপনার চিন্তাশীল মনন এবং কনটেন্ট রাইটিং এর উপর পাবলিক ইনগেজমেন্ট বৃদ্ধি পাবে । তাই কনটেন্ট রাইটিং এর উপর আপনাকে ফোকাস দিতে হবে।

৫. কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং শুরু করবেন ?

ডিজিটাল মার্কেটিং মূলত একটি বিশাল বড় সেক্টর। আপনি রাতারাতি এটাতে সফলতা অর্জন করতে পারবেন না । অবশ্যই আপনাকে পরিশ্রম করতে হবে। কনটেন্ট মার্কেটিং, সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ইমেইল মার্কেটিং, ভিডিও মার্কেটিং, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, ব্লগসাইট ও ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং, ভাইরাল মার্কেটিং , মোবাইল ফোন এডভারটাইজিং ইত্যাদি হলো ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের একেকটি ক্ষেত্র। আপনি যেকোনো একটি ক্ষেত্র বেছে নিয়ে কাজে লেগে যেতে পারেন। একবারে সবগুলো শিখতে যাবেন না। এতে করে হিতে বিপরীত হতে পারে। তবে ভালো মানের ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য আপনাকে সবগুলো মার্কেটিং সেকশন সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা অর্জন করতে হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0
    0
    Your Bag
    Your cart is emptyReturn to Shop
    Scroll to Top